.

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্যাকসিন তৈরির পদক্ষেপ জোরদার

ওয়াশিংটন, ৯ জুলাই, ২০২০(বাসস ডেস্ক): যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনষ্টিটিউট অব অ্যালার্জি এন্ড ইকফেকশাস ডিজিজ (এনআইএসআইডি) নতুন ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছে।
করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু দ’ুটোই বাড়তে থাকার প্রেক্ষাপটে মনক্লোনাল এন্টিবডি পরীক্ষা ও ভ্যাকসিন তৈরির পদক্ষেপ জোরদারের লক্ষ্যে বুধবার তারা এ নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেয়।
জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য মতে, বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৩০ লাখ ৩৫ হাজারেরও বেশি লোক করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ১ লাখ ৩২ হাজারেরও বেশি লোক।
কোভিড-১৯ প্রিভেনশান ট্রায়ালস নেটওয়ার্ক নামের নতুন এ নেটওয়ার্কের আওতায় ব্যাপক পরিসরে ক্লিনিক্যাল ও এন্টিবডি পরীক্ষার জন্যে হাজার হাজার স্বেচ্ছাসেবককে অন্তর্ভূক্ত করা হবে।
এনআইএসআইডি’র পরিচালক এন্থনি ফাউচি বলেছেন, করোনা মোকাবেলায় নিরাপদ ও কার্যকর চিকিৎসা পদক্ষেপ কেবল জীবন রক্ষায় আমাদের সামর্থ্য বাড়াবে না বরং বৈশ্বিক মহামারি অবসানেও সহায়ক হবে।
এনআইএসআইডি আরো বলছে, যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের একশরও বেশি জায়গায় এই নেটওয়ার্ক তার কার্যক্রম চালাবে।
ফাউচি বলেন, মার্কিন সরকার এই গ্রীস্মে দেশজুড়ে পরীক্ষাধীন তিনটি করোনা ভ্যাকসিনে অর্থায়ন ও গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা চালাবে।
তিনি আরো বলেন, আগে যেভাবে ভ্যাকসিন পরীক্ষার সময়সীমার কথা বলা হয়েছিল তা সেভাবেই চলছে। এর ফলে চলতি বছরের শেষে কিংবা আগামী বছরের প্রথম দিকে ভ্যাকসিন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে হাজার হাজার লোককে অন্তর্ভূক্ত করতে হয়।
এই তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার ধাপ মর্ডানা শুরু করছে এই জুলাইয়ে। অক্সফোর্ড/আস্ট্রাজেনকা শুরু করছে আগস্টে এবং জনসন এন্ড জনসন শুরু করছে সেপ্টেম্বরে।