.

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর মোশতাক-জিয়া জাতির বিবেককে কারারুদ্ধ করে রেখেছিলো : ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ২৬ আগস্ট, ২০২০ (বাসস) : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর মোশতাক-জিয়া চক্র অবৈধ ক্ষমতা অপব্যবহারের মাধ্যমে জাতির বিবেককে কারারুদ্ধ করে রেখেছিলো।
আজ বুধবার বিকেলে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে জাতীয় শ্রমিক লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। ওবায়দুল কাদের তাঁর সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা সভায় যুক্ত হন।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারী মোশতাক-জিয়া চক্রের ভূত দেশকে পেছনের দিকে নিয়ে গেছে। যে পাকিস্তান ভেঙ্গে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল, তারা সেই পাকিস্তানের ভাবাদর্শে দেশকে গড়ে তুলতে উন্মাদ হয়ে গিয়েছিল। তারা অবৈধ ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে জাতির বিবেককে কারারুদ্ধ করে ফেলেছিল।’
সরকারের পররাষ্ট্র নীতি সম্পর্কে বিএনপি মহাসচিবের সমালোচনা প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখলের পর থেকে যতবার বিএনপি ক্ষমতায় এসেছে তাদের সময় স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র নীতি বলতে আদৌ কিছু ছিল কি? যারা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে নিজেদের স্বার্থে রাষ্ট্রক্ষমতা ব্যবহার করে তাদের মুখে নীতির কথা মানায় না।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সরকার পরিচালনার সকল ক্ষেত্রে ভিশনারি নীতি মেনে সুদক্ষভাবে নেতৃত্ব দিয়ে চলেছেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতর ক্ষেত্রে এই ভীত গড়ে দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু।
ওবায়দুল কাদের বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আসল বুঝতে পারেন নাই, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ কোন পক্ষ নয়। রোহিঙ্গা ইস্যুতে পক্ষ হলো-মিয়ানমার ও রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। মিয়ারমারের আরাকান রাজ্যে উদ্ভুত ঘটনায় রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রতি বাংলাদেশের জনগণের সহমর্মিতা ও মানবিকতার দিক বিবেচনা করে তাদের আশ্রয় দিয়ে ছিল সরকার। বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে স্থায়ী সমাধান খোঁজার জন্য দ্বিপাক্ষিক, ত্রিপাক্ষিকসহ বহুপাক্ষিক আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বহুপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যার একটি স্থায়ী সমাধানের জন্য জোর প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।
শ্রমিক লীগের সভাপতি ফজলুল হক মন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আজম খসরু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।