.

ডিএসসিইর সেমিনারে বক্তারা : জিডিপি প্রবৃদ্ধির বড় শক্র খেলাপি ঋণ

ঢাকা, ৩১ জানুয়ারি, ২০২১ (বাসস) : মোট দেশজ আয়ের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে আবির্ভূত হবে খেলাপি ঋণ বা এনপিএল। আর্থিক ও ব্যাংকিং খাতকে এ সংস্কৃতি থেকে বের করে আনতে আইনের সঠিক প্রয়োগ প্রয়োজন। নতুন উদ্যোক্ত গড়ে তুলতে অর্থায়ন প্রক্রিয়া আরো সহজীকরন করা প্রয়োজন। বিশেষ করে কোলাটেরল পদ্ধতির পরিবর্তন ছাড়া নতুন ছোট ছোট উদ্যোক্তা গড়ে তোলা অসম্ভব। দেশীয় অর্থনীতির টেকসই বিকাশে বড় ভূমিকা নিতে পারে নতুন উদ্যোক্তা। এজন্য নতুন উদ্যোক্তাদের ব্যাংক ভীতি দূর করতে হবে।
গত শুক্রবার রাজধানীর ঢাকা স্কুল অব ইকোনমিক্সের (ডিএসসিই) উদ্যোক্ত ক্লাব আয়োজিত ‘স্মল ক্রেডিট এ্যান্ড স্কিল ম্যানেজমেন্ট” শীর্ষক ই-সেমিনারে এসব কথা বলেন বক্তারা। সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. নাসিরুজ্জামান। ডিএসসিইর উদ্যোক্তা অর্থনীতি কোর্সের সমন্বয়ক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহবুব আলীর সভাপতিত্বে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন উদ্যোক্তা অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রেহানা পারভীন ও সারাহ তাসনীম, ব্যাংকার আনোয়ার ফারুক তালুকদার, সাংবাদিক সিদ্দিক ইসলাম প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, জনমিতির সুবিধা ঝুকি তৈরি করবে যদি তরুণদের যথাযথভাবে কাজে লাগানো না যায়। এখনও দেশের অধিকাংশ তরুণ আত্ববিশ্বাসের সংকটে ভোগে। এ অবস্থায় তাদের উদ্যোক্তা তৈরি ও আত্মকর্মসংস্থানের সুব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু দেশের নতুন উদ্যোক্তার প্রায় ৯০ শতাংশই ব্যবসা শুরু করেন তাদের আত্বীয় ও প্রথাগত উৎস থেকে অর্থ নিয়ে। আবার জমির মূল্য সমন্বয়হীনতার কারনে অনেক ক্ষেত্রে অর্থ পান না নতুন উদ্যোক্তারা। সেক্ষেত্রে একজন নতুন উদ্যোক্তার দক্ষতা এবং সামাজিক নেটওয়ার্ক সম্পদ হিসেবে পরিগনিত হতে পারে।
কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. নাসিরুজ্জামান বলেন, উদ্যোক্তারা অর্থায়নের জন্য প্রথমে ব্যাংকে আসে না। তারা চেষ্টা করে পরিবার বা প্রথাগত উৎস থেকে অর্থায়নের মাধ্যমে করতে। উদ্যোক্তাদের ব্যাংকে আসার ভয় দূর করতে হবে। উদ্যোক্তা বান্দব হতে অনেক বিষয়ই পরিবর্তন এসেছে ব্যাংকিং খাতে। সামনের দিনে আরো বড় পরিবর্তন আসবে। নতুন উদ্যোক্তা ও ছোট কৃষকদের ঋণ দিতে বড় পরিবর্তন আনার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে কৃষি ব্যাংকে।
প্রফেসর মুহাম্মদ মাহবুব আলী বলেন, ব্যাংকিং খাত দেশের অর্তনীতির বিকাশে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে। দেশের ব্যাংকগুলোর সক্ষমতার পরিপূর্ন ও দক্ষ ব্যবহার করা হচ্ছে না। নতুন উদ্যোক্তা ও দক্ষতা এ দুটির সমন্বয় প্রয়োজন। উদ্যোক্তাদের জন্য ব্যাংক যেমন অর্থায়ন করবে তেমনি নতুন উদ্যোক্তাদের একটি প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা রাখতে পারে।

Go to Source
February 1, 2021
5:00 AM