বাংলাদেশে যত টেস্ট হওয়া প্রয়োজন তত হচ্ছে না

২১ জানুয়ারি থেকে আজ (২৯ মার্চ) পর্যন্ত অর্থাৎ ৬৮ দিনে বাংলাদেশে টেস্ট হয়েছে মাত্র এক হাজার ১৮৫ জনের। বর্তমানে দেশে আক্রান্তে রোগীর সংখ্যা ৪৮ জন । যেখানে হাজার হাজার পরীক্ষা দরকার সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৯ জনের পরীক্ষা করার বিষয়টি ‘ তামাশা বলছেন অনেকেই । শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজের ভাইরোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. জাহিদুর রহমান বাংলাট্রিবুইন কে বলেন, ‘আইইডিসিআর কোভিড-১৯ রোগের মহামারি শুরুর পর থেকে গণমাধ্যমে একের পর এক মিথ্যা তথ্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে আসছে। কিন্তু সত্যটা হলো ঢাকা ও চট্টগ্রাম মিলিয়ে ১০টি প্রতিষ্ঠানে করোনাভাইরাস পরীক্ষার সক্ষমতা ছিল। তাহলে প্রথম থেকে তারা কেন করোনাভাইরাস শনাক্ত করতে যে মানের ল্যাবরেটরি (পরীক্ষাগার) প্রয়োজন সে মানের ল্যাব বাংলাদেশে শুধু তাদেরই আছে বলে জানিয়েছে? https://bit.ly/3dDrab1