.

নির্ধারিত বিতর্কের আগে কোভিড পরীক্ষার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেন প্রধান মার্কিন সিনেটর গ্রাহাম

ওয়াশিংটন, ১০ অক্টোবর, ২০২০ (বাসস ডেস্ক) : আগামী সপ্তাহে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সুপ্রিম কোর্টের মনোনয়নের বিবেচনায় থাকা সিনেটর ও বিচার বিভাগীয় কমিটির সভাপতি প্রখ্যাত মার্কিন আইন প্রনেতা লিন্ডসে গ্রাহাম শুক্রবার ডিমোক্র্যাটদের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস পরীক্ষার অনুরোধ নাকোচ করেছেন। খবর এএফপি’র।
ট্রাম্পের দক্ষিণ ক্যারোলিনার এই সহযোগী দক্ষিণ রাজ্যের সিনেট দৌড়ে অংশগ্রহনকারী নির্ধারিত বিতর্কের আগে ডিমোক্র্যাটিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের ভাইরাস পরীক্ষার অনুরোধ গ্রহণ করেননি।
গ্রাহামের এই সিদ্ধান্তে জাইম হ্যারিসনের সঙ্গে বিতর্কটি বাদ দিতে প্ররোচিত করেছে। এর পরিবর্তে প্রার্থীদের পৃথক সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হবে।
তবে বিষয়টি ওয়াশিংটনে সমালোচনা তৈরির আশঙ্কা সৃষ্টি করেছে। গ্রাহাম গত মাসে লিবারেল জাস্টিস রুথ বদর জিন্সবার্গের মৃত্যুতে আদালতের শূন্য আসনটি রক্ষণশীল বিচারক অ্যামি কনি ব্যারেট কতৃক পুরণ নিশ্চিত করার শুনানিতে আগামী সপ্তাহে সভাপতিত্ব করবেন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ভাইরাস পরীক্ষায় ইতিবাচক ধরা পড়লে গ্রাহামকে ১০ দিনের বা আরও বেশি দিনের জন্য তিনি কোরেনটাইনে থাকতে বাধ্য হতে পারেন। সেক্ষেত্রে শুনানিটি স্থগিত করা হতে পারে, এমনই আশঙ্কায় রিপাবলিকানরা পরীক্ষার তীব্র বিরোধীতা করছেন।
কমিটির অন্য দুই রিপাবলিকান সিনেটর, মাইক লি এবং থম টিলিস ২৬ সেপ্টেম্বর এক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার পরে তাদের ভাইরাস পরীক্ষায় ইতিবাচক ধরা পরে। ওই অনুষ্ঠানে ট্রাম্প ব্যারেটকে তার মনোনীত প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন। অংশগ্রহণকারীদের বেশিরভাগই মাস্ক পড়েন নাই ও তাদের অনেকেরই কোভিড-১৯ পরীক্ষায় পজিটিভ ধরা পরে।
বিচার বিভাগীয় কমিটির ২২ সদস্যের মধ্যে ১০ সদস্যের বয়স ৬৮ বা তার বেশি। প্রবীণ দুই অংশগ্রহণকারী ৮৭ বছর বয়সী সিনেটর, ডেমোক্র্যাট ডায়ান ফেইনস্টাইন এবং রিপাবলিকান চক গ্রাসলেকে উভয়ের কেউ মাস্ক পরিহিত ছিলেন না। প্যানেলের ফেইনস্টাইন এবং অন্যান্য ডেমোক্রেটরা ৬৫ বছর বয়সের গ্রাহামকে একটি চিঠি লিখেছেন এই বলে যে, তিনি শুনানি ধরে রেখে ব্যারেট এবং সিনেটরদের “গুরুতর ঝুঁকির” মধ্যে রাখছেন, বিশেষ করে অংশগ্রহণকারীদের জন্য বাধ্যতামূলক পরীক্ষা ছাড়াই।
ডেমোক্রেটরা লিখেছে, আমরা আপনাকে এই শুনানির মাধ্যমে অনিরাপদভাবে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি, তারা যাতে এই মারাত্মক ভাইরাসের আরেকটি সুপার স্প্রেডার না হয়, তা নিশ্চিত করার জন্য কোন সুস্পষ্ট পরীক্ষামূলক ব্যবস্থা নেই।
স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন সিনেটর কমলা হ্যারিস, যিনি জো বাইডেনের ভাইস-প্রেসিডেন্সিয়াল রানিংমেট।

Go to Source
October 11, 2020
12:07 AM